গিলে ফেলেছিলেন আস্ত একটা ছুরি : করা হলো অস্ত্রোপচার

বং শিলিগুড়ি টাইমস : ঘটনার শুরু এই মাসের প্রথমের দিকে। গাঁজার নেশার ঘোরে আস্ত একটা ছুরি গিলে ফেলেন ওই ব্যক্তি। তারপর বেমালুম ভুলেও যান। তারপর পেটে অসহ্য ব্যথা শুরু হলে সম্বিত ফিরে পান। শেষমেশ রীতিমত অস্ত্রোপচার করে পেট থেকে সেই ছুরি বের করে আনলেন এইমসের চিকিৎসকরা। ঘটনাটি অত্যন্ত বিরল বলেই মনে করছেন চিকিৎসকরা।

যে ছুড়িটি বের করা হয়েছে সেটি প্রায় ২০ সেন্টিমিটারের। ধারালো অংশটি ১০সেমি এবং বাকি অংশটুকু হাতল। চিকিৎসকদের ধারণা নেশার ঘোরে অপ্রকৃতিস্থ হয়েই ছুরিটি আত্মসাৎ করেছিলেন ওই ব্যক্তি। অপারেশনের দায়িত্বে থাকা এইমসের গ্যাসো সার্জারি বিভাগের প্রধান ড. এন আর দাশ জানিয়েছেন , ছুরিটি মুখ থেকে নিচে নামার সময় খাদ্যনালী তথা শ্বাস নালী চিরে নীচে নামতেই পারতো। কিন্তু এক্ষেত্রে ছেলেটির ভাগ্য ভালো যে তা হয়নি। এমনকি ফুসফুস এবং হৃদপিণ্ডেরও কোনো ক্ষতি হয়নি। ছুড়িটি লিভারে আঘাত করে। যার জন্য অসহ্য ব্যথা শুরু হয়। পেটের এক্স রে করানো হলে ডাক্তারদের চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায়।

দিল্লির সফদরজঙ্গ হাসপাতাল থেকে যখন ওই ব্যক্তিকে এইমসে আনা হয় তখন তার শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ ছিল। সেপ্টিসেমিয়ার লক্ষন ছিল তাঁর মধ্যে। লিভারে পুঁজ এবং ফুসফুসে জল জমে যায়। এছাড়াও হিমোগ্লোবিনের মাত্রাও ছিল খুবই কম।

এই অবস্থায় অস্ত্রোপচার সম্ভব ছিলোনা বলে সাত দিন ধরে কাউন্সিলিং করা হয়। রক্ত দেওয়া হয় যাতে শরীরে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা ঠিক থাকে। এরপর ১৯ শে জুলাই তাকে অপারেশনের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। ড. দাশ জানান, অপারেশনের সময় ছুড়িটি বের করার কারণে তারা প্রচুর রক্তপাত হওয়ার আশঙ্কা করেছিলেন। এছাড়াও লিভারে ছুরিটি গেঁথে থাকায় লিভারের কিছু অংশ বাদ দিতে হতে পারে এই আশঙ্কাও করেছিলেন চিকিৎসকরা। কিন্তু এক্ষেত্রে তা হয়নি।

অস্ত্রোপচার সাফল্যের সাথে শেষ হয়েছে। বর্তমানে ওই ব্যক্তিকে নলের মাধ্যমে তরল খাবার দেওয়া হচ্ছে এবং তার অবস্থা এখন অনেকটাই স্থিতিশীল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here