শিলিগুড়িতে নতুন কোভিড হাসপাতালের কথা ভাবছে প্রশাসন

বং শিলিগুড়ি টাইমস : প্রতিনিয়ত কোভিড সংক্রমণের সংখ্যা শিলিগুড়িতে বেড়েই চলছে। সংক্রামিতের সংখ্যা প্রায় ৬০০ ছুঁই ছুঁই। চিকিৎসাধীন প্রায় দুশোর বেশি। শিলিগুড়িতে ২টা কোভিড হাসপাতালে ১০০টি বেড রয়েছে রোগীদের জন্যে। কোরোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে প্রশাসনের তরফ থেকে আরো একটি কোভিড হাসপাতালের কথা ভাবা হচ্ছে।

মাটিগাড়া কোভিড হাসপাতালে প্রায়ই রোগীদের জন্যে বেড ফাঁকা পাওয়া যায়না। রোগী ছুটি হলে কিছু বেড খালি মেলে। কাওয়াখালির সিভিয়ার একিউট রেসপিরেটরি ইনফেকশন কেন্দ্রটিকে কোভিড হাসপাতালে পরিবর্তন করে কোভিড সংক্রামিত রোগীদের চিকিৎসা চলছে। উপসর্গহীন রোগীকে ‘সেফ হাউজ’ করে রাখা হচ্ছে। উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সন্দেহভাজন রোগীদের রাখা হচ্ছে। বেসরকারি হাসপাতালে ১০% বেড রাখতে বলা হয়েছে কোভিড সংক্রামিত রোগীদের জন্য। কিন্তু সব হাসপাতালে ব্যবস্থা করা হয়নি বলে অভিযোগ।

কোনো নার্সিংহোম বা বেসরকারি হাসপাতালকে কোভিড চিকিৎসাধীন করতে খরচ প্রচুর। প্রতিটি কোভিড হাসপাতালের জন্যে মাসে কোটি টাকার ওপর খরচা হচ্ছে। বেসরকারি হাসপাতাল, নার্সিংহোমে যে ডাক্তার, নার্সরা কাজ করছেন তাদের খরচও সরকার দিচ্ছে। তার পরেও সরকরি হাসপাতাল থেকে চিকিৎসক দিতে হচ্ছে। প্রশাসন সূত্রে খবর, তাই সরকারি কোনো ভবন পেলে কম খরচে এমন একটা হাসপাতাল চালানো সম্ভব হবে। যেমন পাহাড়ে ত্রিবেণিতে জিটিএর পর্যটন বিভাগের অধীনে থাকা একটি টুরিস্ট লজকে কোভিড হাসপাতাল করা হয়েছে। স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে তেমন কোনো সরকারি ভবনের খোঁজখবর করা হচ্ছে।

উত্তরবঙ্গের কোরোনা নিয়ন্ত্রণের ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক সুশান্ত রায় বলেন, ” পরিস্থিতির দিকে আমরা নজর রাখছি। সংক্রমণ আরো বাড়তে পারে। সে ক্ষেত্রে বিশেষ করে উপসর্গযুক্ত রোগীদের কথা ভেবে শিলিগুড়িযে আরও একটি কোভিড হাসপাতাল তৈরি করার কথা ভাবা হচ্ছে। সরকারি কোনো ভবনে পরিকাঠামো গড়ে তোলা হবে।” রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তরের সাথেও এই নিয়ে কথা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here